Source: https://www.tiq.qld.gov.au/iet-strategy/advertise-your-institution-in-the-next-issue-of-study-abroad-guidebook-australia-for-japan/
in

জাপানে আইটি খাতে ক্যারিয়ার গড়ুন

১২৫ মিলিয়ন জনবসতির দেশ  জাপান অর্থনীতি, ব্যবসা, সংস্কৃতি ও প্রযুক্তিবিদ্যার দিক থেকে  অনেক এগিয়ে। অর্থনীতির দিক থেকে জাপান পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম দেশ। প্রযুক্তির দিক থেকেও জাপান অনেক উন্নত। জাপানে আইটিতে ক্যারিয়ার গড়ে তোলা তাই অনেক মানুষেরই স্বপ্ন। আজকে আমরা সেই স্বপ্নপূরণের পথ সম্পর্কে জানার চেষ্টা করবো। যারা জাপানে আইটি খাতে ক্যারিয়ার গড়তে চান, এই আর্টিকেল তাদের জন্য।

জাপানে প্রত্যেকটি কোম্পানিতেই সোমবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত, প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে বিকাল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত একটানা কাজ করা হয়। এছাড়াও সপ্তাহে মোট ৪০ ঘন্টা অতিরিক্ত কাজ করে থাকেন কর্মচারীরা। জাপানে যেকোনো কোম্পানিতেই কাজ করতে হলে আপনার দলগতভাবে কাজ করার মনমানসিকতা থাকতে হবে। জাপানে পুরুষদের অফিশিয়াল  ড্রেস হচ্ছে সাদা কলারের সাথে কালো টাই ও যেকোনো রঙের শার্ট। নারীদের ক্ষেত্রে এমন কোনো ধরাবাঁধা নিয়ম নেই।

জাপানে চাকরি খোঁজার পূর্বে সেখানে থাকার বন্দোবস্ত করে নেয়া উচিত। আপনি যে দেশেরই অধিবাসীই হোন না কেনো, জাপানে চাকরির জন্যে বসবাস করতে আসলে আপনাকে অবশ্যই ভিসা ও বিশেষ পারমিট সংগ্রহ করতে হবে। এছাড়াও আপনার পাসপোর্ট ও জন্ম নিবন্ধন সনদপত্রের দরকার পড়বে। জাপানে ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় বসবাস করতে চাইলে জাপানিজ ইমিগ্রেশন অ্যাক্ট অনুসারে আপনাকে ‘সার্টিফিকেট অফ এলিজিবিলিটি’ সংগ্রহ করতে হবে।

জাপানে আইটি খাতে ক্যারিয়ার গড়ে তোলা অনেক কঠিন মনে হলেও আসলে তা ততটা কঠিন নয়। আপনি যদি ভালো একজন কম্পিউটার প্রোগ্রামার হয়ে থাকেন কিংবা আইটির উপর বেশ ভালো দক্ষতা থাকে , তাহলে জাপানে ছোটোখাটো চাকরি খুঁজে বের করা একেবারেই সহজ। মনে রাখবেন, জাপানিজরা খুব বেশি দরকার না পড়লে ইংরেজিতে কথা বলে না। তাই চেষ্টা করবেন, জাপানি ভাষা শিখে নিয়ে ইংরেজির বদলে জাপানিজ ভাষায় কাজ খুঁজতে। সেক্ষেত্রে কাজ খুঁজে পাওয়াটা সহজ হয়ে যাবে।

জাপানে অনেক বড় বড় আন্তর্জাতিক মানের কোম্পানি রয়েছে, যেগুলোতে লক্ষ লক্ষ প্রোগ্রামার কাজ করেন। তাই আপনাকে একজন প্রোগ্রামার হিসেবে চাকরি দেয়ার পূর্বে জাপানিজরা আপনার মূল্যায়ন দেখতে চাইবে। সেক্ষেত্রে আপনার দরকার পড়বে সুন্দর আর সাজানো গোছানো একটি সিভি ও রিজিউম। আর অবশ্যই থাকতে হবে প্রোগ্রামিং ও প্রযুক্তিগত দক্ষতা। তাছাড়া জাপানিজরা অনেক বেশি কাজপাগল হয়। তাই সেদিকেও খেয়াল রেখে চাকরি খোঁজার চেষ্টা করবেন।

যারা দুবাইয়ে আইটি খাতে ক্যারিয়ার গড়ার আর্টিকেলটি পড়েন নি, তারা সেই আর্টিকেলটি এখান থেকে দেখে আসতে পারেন।

জাপানে আইটি খাতে একজন পুরুষ কর্মচারীর বাৎসরিক বেতন ৪৫ হাজার ডলার থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১ লক্ষ ডলার পর্যন্ত হতে পারে। আর একজন নারী কর্মচারীর বাৎসরিক বেতন ৪০ হাজার ডলার থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৯০ হাজার ডলার পর্যন্ত হয়ে পারে। তবে অভিজ্ঞতা, দক্ষতা ও বয়সের উপর ভিত্তি করে এই বেতন কাঠামোতে পরিবর্তন আসতে পারে।

অনেক জাপানিজ কোম্পানিগু অবশ্য তাদের দেশের বাইরে থেকে প্রোগ্রামার ও ইঞ্জিনিয়ার নিয়োগ দেয় না। তবুও জাপানে আইটি খাতে যেসকল পদে ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব, সেগুলোর মধ্যে বিশেষ কিছু পদ সম্পর্কে নিচে বর্ণনা করা হলো।

লিনাক্স এন্ড জাভাস্ক্রিপ্ট সফটওয়্যার প্রোগ্রামার

এই পদে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকা লাগবে সেগুলো হচ্ছে,

  • জাপানিজ ও ইংরেজি ভাষা জানতে হবে
  • লিনাক্স, উইন্ডোজ ও ম্যাক অপারেটিং সিস্টেম সম্পর্কে দক্ষ হতে হবে
  • জাভাস্ক্রিপ্ট প্রোগ্রামিং ও এর ফ্রেমওয়ার্কগুলো সম্পর্কে জানতে হবে
  • টাইপস্ক্রিপ্ট ও স্পা সম্পর্কে জ্ঞান থাকতে হবে

ফুল স্ট্যাক ইঞ্জিনিয়ার

এই পদে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকা লাগবে সেগুলো হচ্ছেঃ

  • জাপানিজ ও ইংরেজি ভাষা জানতে হবে
  • বিটুসি সিস্টেম অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্টের উপর তিন বছরের বেশি অভিজ্ঞতা থাকতে হবে
  • মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ও ওয়েবসাইট ডেভেলপ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে
  • আইওএস, এন্ড্রয়েড, ক্রস ডিভাইস, ক্রস ব্রাউজার, এইচটিএমএল, সিএসএস, জাভাস্ক্রিপ্ট ও এদের ফ্রেমওয়ার্ক সম্পর্কে গভীর জ্ঞান থাকতে হবে
  • ডেটাবেজ, প্রোগ্রামিং ডিজাইন প্যাটার্ন, রুবি, পিএইচপি, রেডিস, রেডশিফট ও এদের ফ্রেমওয়ার্কের উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে

ওয়েব ইঞ্জিনিয়ার

এই পদে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকা লাগবে সেগুলো হচ্ছেঃ

  • জাপানিজ ও ইংরেজি ভাষা জানতে হবে
  • এইচটিএমএল, সিএসএস, জাভা ও জাভাস্ক্রিপ্টের উপরে গভীর দক্ষতা থাকতে হবে
  • এসকিউএল ডেটাবেজ সম্পর্কে জ্ঞান থাকতে হবে
  • অ্যাপ্লিকেশন স্পেক ডিজাইন করার নিয়ম জানতে হবে
  • উইন্ডোজ ও লিনাক্স সার্ভার সম্পর্কে জ্ঞান থাকতে হবে
  • পিএইচপি, এএসপি, সি শার্প, ভিজ্যুয়াল ব্যাসিক, ডট নেট সম্পর্কে দক্ষতা থাকতে হবে

থ্রিডি ইঞ্জিনিয়ার

এই পদে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকা লাগবে সেগুলো হচ্ছে,

  • জাপানিজ ও ইংরেজি ভাষা জানতে হবে
  • সিনেমা ও মুভি তৈরীর জন্যে থ্রিডি গ্রাফিক্স ও থ্রিডি সিজি ডিজাইনের ওপর দক্ষতা থাকতে হবে
  • মায়া, জেডব্রাশ ও মাড বক্স সম্পর্কে গভীর জ্ঞান থাকতে হবে
  • টেক্সচার কালেকশন ও এডিটিং সম্পর্কে জানতে হবে
  • টুডি ও থ্রিডি আর্টওয়ার্ক তৈরি ও ডিজাইনের উপর কমপক্ষে ২ থেকে ৪ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে

মোবাইল গেম ইঞ্জিনিয়ার

এই পদে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকা লাগবে সেগুলো হচ্ছে,

  • জাপানিজ ও ইংরেজি ভাষা জানতে হবে
  • ইউনিটি, এনজিইউআইয়ের উপর কমপক্ষে ৪ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে
  • সি শার্প, পিএইচপি, জাভাস্ক্রিপ্ট, এইচটিএমএলের উপর দক্ষতা থাকতে হবে
  • লিনাক্স ও অ্যাপাচি সকেট সম্পর্কে জানতে হবে
  • মাইএসকিউএল, রেডিস, মেমা ক্যাশড ও এডব্লিউএস সম্পর্কে গভীর দক্ষতা থাকতে হবে

সফটওয়্যার ডেভেলপার

এই পদে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকা লাগবে,

  • জাপানিজ ও ইংরেজি ভাষা জানতে হবে
  • এন্ড্রয়েড ও আইওএস অপারেটিং সিস্টেমের জন্য সফটওয়্যার তৈরীর অভিজ্ঞতা থাকতে হবে
  • গুই অ্যাপ্লিকেশন তৈরী করার উপর কমপক্ষে ৩ থেকে ৪ বছরের দক্ষতা থাকতে হবে
  • টিসিপি, আইপি ও নেটওয়ার্কিংয়ের উপর গভীর দক্ষতা থাকতে হবে
  • এইচটিএমএল, সিএসএস ও জাভাস্ক্রিপ্ট প্রোগ্রামিং ভাষার উপর জ্ঞান থাকতে হবে
  • পিএইচপি, রুবি, পাইথন ও জাভার উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে

One Ping

  1. Pingback:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ব্ল্যাক ম্যাজিক | কালো জাদু (তৃতীয় পর্ব)

ইউরোপিয়ান দেশগুলোতে আইটি খাতে ক্যারিয়ার গড়ুন