Source: https://www.bankersequipment.com/2018/11/07/why-digital-banking-should-include-a-human-component/
in

ব্যাংকিং খাতের আইটিতে ক্যারিয়ার গড়ুন

ক্যারিয়ার গড়ার জন্য উপযুক্ত একটি খাত হচ্ছে ‘ব্যাংকিং’। ব্যাংকিং খাতে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য হিসাবরক্ষণ, অর্থনীতি, ব্যবসা, যোগাযোগ, ফাইন্যান্স, মার্কেটিং অথবা কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে পড়াশোনা করতে হয়। ব্যাংকিং খাতের আইটিতেও ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব। চলুন জেনে নেয়া যাক, ব্যাংকিং খাতের আইটিতে গড়া যায় এমন কিছু ক্যারিয়ার সম্পর্কে।

সিনিয়র ডেটা সায়েন্টিস্ট

ব্যাংকিং খাতে, একজন সিনিয়র ডেটা সায়েন্টিস্ট মূলত অর্থনীতি ও ফাইন্যান্স বিভাগে কাজ করে থাকেন। একজন সিনিয়র ডেটা সায়েন্টিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকতে হবে, সেগুলো হচ্ছে,

  • কম্পিউটার সায়েন্স, স্ট্যাটিস্টিকস, ইনফরমেশন সায়েন্স, গণিত, অর্থনীতি অথবা অপারেশন রিসার্চের উপর কমপক্ষে ২ বছরের অনার্স অথবা মাস্টার্স ডিগ্রি থাকতে হবে।
  • মেশিন লার্নিং, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও এনএলপির উপর দক্ষতা থাকতে হবে।
  • ডেটা ড্রাইভেন স্ট্যাটিস্টিক্যাল অ্যানালাইসিস ও মডেলিংয়ের উপর গভীর জ্ঞান থাকতে হবে।
  • পাইথন, আর, সি প্লাস প্লাস, স্ক্যালা এবং মেশিন লার্নিং ভাষার উপর দক্ষ হতে হবে।
  • টেনসর ফ্লো, কেরাস, ক্যাফে, ম্যাক্স নেট, স্পার্ক এবং হ্যাডপ ফ্রেমওয়ার্কের উপর কমপক্ষে ৩ থেকে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • কাস্টম অ্যালগরিদম ও এনভায়রনমেন্টের উপর কমপক্ষে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

ক্লাউডসার্ভ ইমপ্লিমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ার

ব্যাংকিং খাতে একজন ক্লাউডসার্ভ ইমপ্লিমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ার মূলত কম্পিউটারের ডেটা সংরক্ষন ও ক্লাউড বিভাগে কাজ করে থাকেন। একজন ক্লাউডসার্ভ ইমপ্লিমেন্টেশন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকতে হবে, সেগুলো হচ্ছে,

  • অ্যাজিউর ক্লাউড আর্কিটেকচার ও ডিজাইনের উপর কমপক্ষে ৩ থেকে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • ক্লাউড ভার্চুয়াল মেশিন ও সার্ভার টেকনোলজিগুলোর উপর যথেষ্ট দক্ষতা থাকতে হবে।
  • ক্যাপাইসিটি মনিটরিং ও ট্রেন্ড অ্যানালাইসিসের কাজ জানতে হবে।
  • লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম, ক্লাউড হেলথ মনিটরিং, ক্যাপাসিটি মিটারিং এবং ক্লাউড পিরসিংয়ের উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।
  • পাওয়ারশেল, সিএলআই, পাইথন, ওয়াইএমএল, জেসন, পাপেট এবং জেনকিনস পাইপলাইনের উপর কমপক্ষে ২ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • অ্যাপ্লিকশন সার্ভার, নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি ও কমপ্লায়েন্স রিকোয়ারমেন্টের উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।
  • অটো স্কেলিং, ডিজাস্টার রিকোভারি  ও সিস্টেম ইনফ্রাস্ট্রাকচারের উপর গভীর দক্ষতা থাকতে হবে।

ইউনিক্স এন্ড সি প্লাস প্লাস ডেভেলপার

ব্যাংকিং খাতে, একজন ইউনিক্স এন্ড সি প্লাস প্লাস ডেভেলপার মূলত ব্যাংকের অ্যাপ্লিকেশন ও সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট বিভাগে কাজ করে থাকেন। একজন ইউনিক্স এন্ড সি প্লাস প্লাস ডেভেলপার হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকতে হবে, সেগুলো হচ্ছে,

  • সি প্লাস প্লাস ও মডার্ন সি প্লাস প্লাসের উপর কমপক্ষে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • সার্ভার সাইড অ্যাপ্লিকেশনের মডেল ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্টের উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।
  • ডিস্ট্রিবিউটেড সিস্টেম ডিজাইন, নেটওয়ার্ক প্রটোকল ও মেসেজিং ফ্রেমওয়ার্কের উপর গভীর জ্ঞান থাকতে হবে।
  • লো লেটেন্সি সার্ভার আর্কিটেকচারের উপর দক্ষ হতে হবে।
  • ডিবাগিং টেকনিক ও কোড টার্গেটিং সম্পর্কে জানতে হবে।
  • জিসিসি, জিডিবি, এমএসভিসি এবং এসভিএনের উপর দক্ষ হতে হবে।
  • পাইথন, পার্ল ও শেল স্ক্রিপ্টিং ভাষার উপর কমপক্ষে ৩ থেকে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

রিস্ক এন্ড কন্ট্রোল অ্যানালিস্ট

ব্যাংকিং খাতে, একজন রিস্ক এন্ড কন্ট্রোল অ্যানালিস্ট মূলত ব্যবস্থাপনা ও কোঅর্ডিনেশন বিভাগে রিস্ক ও কন্ট্রোল প্রজেক্টের অধীনে কাজ করে থাকেন। একজন রিস্ক এন্ড কন্ট্রোল অ্যানালিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকতে হবে, সেগুলো হচ্ছে,

  • জিএমটি রিস্ক ও জিএম রিস্ক ম্যানেজমেন্টের উপর কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • সিআইএসও, সাইবার সিকিউরিটি প্রোগ্রাম ও সেকেন্ড লাইন টেকনোলজি রিস্ক সম্পর্কে জানতে হবে।
  • সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টে লাইফসাইকেল, আইডেন্টিটি ও একসেস ম্যানেজমেন্টের উপর গভীর দক্ষতা থাকতে হবে।
  • আইটি অপারেশন ও প্রোডাকশন সাপোর্টের উপর যথেষ্ট দক্ষ হতে হবে।
  • সিকিউরিটি প্রিন্সিপাল, আইটি সিকিউরিটি রিস্ক ও রিলেটেড কন্ট্রোল টেকনোলজিগুলো সম্পর্কে যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।
  • এফএফআইইসি ম্যানেজমেন্ট, এনআইএসটি, আইএসও এবং সিওবিআইটি স্ট্যান্ডার্ড সম্পর্কে জানতে হবে।

টেকনোলজি কন্ট্রোল অফিসার

ব্যাংকিং খাতে, একজন টেকনোলজি কন্ট্রোল অফিসার মূলত কম্পিউটার বিভাগে সকল ধরনের টেকনোলজির দায়িত্বে কাজ করে থাকেন। একজন টেকনোলজি কন্ট্রোল অফিসার হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকতে হবে, সেগুলো হচ্ছে,

  • সিআইবি ও সিটিসি সম্পর্কে জানতে হবে।
  • এন্ড টু এন্ড ম্যানেজমেন্ট ও স্ট্র্যাটেজিক টিসিও প্রজেক্টগুলো সম্পর্কে জ্ঞান থাকতে হবে।
  • অ্যাপ্লিকেশন কন্ট্রোল অ্যাসেসমেন্ট ও সাইবার সিকিউরিটি কন্ট্রোল অ্যাসেসমেন্টের উপর যথেষ্ট দক্ষতা থাকতে হবে।
  • ইন্টারনাল অডিট ও রেগুলেটরি ম্যানেজমেন্টের উপর জ্ঞান থাকতে হবে।
  • ইনফরমেশন টেকনোলজি অডিটিং, কম্পিউটার ও সফটওয়্যার প্রোগ্রামের উপর দক্ষ হতে হবে।
  • প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট স্কিল ও ডেডলাইন ড্রাইভেন প্রজেক্টের উপর পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • মাইক্রোসফট অফিস স্যুইট,ভিসিও ও প্রোগ্রামিং ভাষার উপর জ্ঞান থাকতে হবে।
  • হার্ডওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও সুইচিংয়ের উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।

আইটি অডিটর

ব্যাংকিং খাতে, একজন আইটি অডিটর মূলত কম্পিউটার বিভাগে সকল ধরনের টেকনোলজি দ্বারা ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যে সম্পর্ক বৃদ্ধির কাজ করে থাকেন। একজন আইটি অডিটর হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকতে হবে, সেগুলো হচ্ছে,

  • আইটি প্রফেশনাল এনভায়রনমেন্টে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • আইটি অ্যাসেসমেন্ট ও কন্ট্রোল অ্যাসেসমেন্টের উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।
  • আপগ্রেডেড টেকনোলজি সম্পর্কে জ্ঞান, অডিটিং ম্যানেজমেন্টের উপর দক্ষ হতে হবে।
  • টেকনিক্যাল ও নন-টেকনিক্যাল ভাষার উপর দক্ষতা থাকতে হবে।
  • ইন্টারপ্রেট রিস্ক, ইনভেন্টিভ টেস্টিং মেথড ও প্রজেক্ট অ্যাসেসমেন্টের উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।
  • বিভিন্ন কোম্পানির ইন্টারনাল সিস্টেম ডেভেলপমেন্ট ও রিসার্চ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

জাভা হেজ ফান্ড ডেভেলপার

ব্যাংকিং খাতে, একজন জাভা হেজ ফান্ড ডেভেলপার মূলত হেজ ফান্ড ও ট্রেডিংয়ের উপর বিভিন্ন ধরনের কাজ করে থাকেন। একজন জাভা হেজ ফান্ড ডেভেলপার হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনার যেসকল দক্ষতা থাকতে হবে, সেগুলো হচ্ছে,

  • জাভা প্রোগ্রামিং ভাষার উপর কমপক্ষে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা।
  • জাভা ও সি প্লাস প্লাস এবং মাল্টি থ্রেডেড প্রোগ্রামিংয়ের  উপর যথেষ্ট জ্ঞান থাকতে হবে।
  • ফিক্স ও অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে জ্ঞান থাকতে হবে।
  • মার্কেট ডেটা এপিআই, ব্লুমবার্গ ও রিউটারসের উপর দক্ষ হতে হবে।
  • মেসেজিং ফ্রেমওয়ার্ক, জিরো এমকিউ, একটিভ এমকিউ, জিআরপিসির উপর দক্ষ হতে হবে।
  • ডিজাইন প্যাটার্ন ও ইঞ্জেকশন ফ্রেমওয়ার্কের উপর কমপক্ষে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • ইউনিট টেস্টিং, জিআইটি ও কম্পিউটার অ্যালগরিদমের উপর দক্ষতা থাকতে হবে।

এগুলো ছাড়াও ব্যাংকিং খাতে আইটিতে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য আরো অনেক ধরনের চাকরি রয়েছে, যেগুলো টেকনোলজি ও প্রোগ্রামিংয়ের সাথে সম্পৃক্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Legit ways to earn money – Sell Websites on Flippa

ব্যবসা খাতের আইটি সেক্টরে ক্যারিয়ার গড়ুন