Source: https://www.smashingmagazine.com
in , ,

টেস্টার ওয়ার্ক – অ্যাপ টেস্ট করে আয় করুন

অনলাইন থেকে অ্যাপ টেস্ট করেও বেশ ভালো ভাবেই আয় করা যায়। অ্যাপ টেস্টিং করে আয় করার জন্যে অনেক ভালো ভালো ওয়েবসাইট থাকলেও আজকে আমি একটা বিশেষ ওয়েবসাইট ‘টেস্টার ওয়ার্ক’ নিয়ে কথা বলবো।

টেস্টার ওয়ার্ক কী?

টেস্টার ওয়ার্ক এক ধরনের অ্যাপ টেস্টিং ওয়েবসাইট যেখান থেকে আপনি অ্যাপ টেস্ট করে আয় করতে পারবেন। এখানে আপনি অন্যের দেয়া সফটওয়্যারগুলো টেস্ট করবেন একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে।

টেস্টার ওয়ার্কে কীভাবে জয়েন করবো?

প্রথমে আপনাকে এখানে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে!  তারপর আপনার নিজস্ব তথ্য দিন, তারপর আপনার টেস্টিংয়ের অভিজ্ঞতা এবং কোন কোন ডিভাইস দ্বারা আপনি টেস্ট করতে পারবেন সে সম্পর্কে লিখুন। তারপর আপনার পরিক্ষা নেবে তারা। সেখানে আপনার কিউএ টেস্ট এবং ইংরেজি দক্ষতার পরিক্ষা নেয়া হবে। আপনার কাছে পাশ করার জন্যে দুটো এটেম্পট থাকবে।

অর্থাৎ রেজিস্ট্রেশন প্রসেস দুটো ভাগে বিভিক্ত। প্রথম ভাগে আছে রেজিস্ট্রেশনে বং দ্বিতীয় ভাগে আছে অনলাইন পরিক্ষা।

যদি আপনি পরিক্ষায় ফেল করেন তাহলে, আপনাকে আরেকটি চান্স দেয়া হবে পুরো পরিক্ষাটি আবার দেয়ার জন্যে। যদি আপনি পরিক্ষায় পাশ করতে পারেন তাহলে আপনার মেইলে তারা আপনাকে টেস্টার হিসেবে যুক্ত করার কনফার্মেশন দেবে।

আপনি পাশ করলে আপনার মেইল প্রতিদিন চেক করতে হবে, কারন, তারা আপনার কাজ আপনার মেইলে দিয়ে দিবে। যেহেতু আপনি একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে এখানে কাজ করছেন তাই, আপনার কাজের নির্দিষ্ট কোন সময় সীমা থাকবে না। তবে আপনাকে যদি তারা প্রতিদিন একটা করে অ্যাপ টেস্ট করার জন্যে দেয় তাহলে আপনাকে অবশ্যই সেটা তাদের দেয়া নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই শেষ করতে হবে।  

প্রতি অ্যাপ টেস্টের ১২ থেকে ১৪ দিনের মধ্যে আপনি আপনার পেমেন্ট পেয়ে যাবেন। প্রতিটি অ্যাপ টেস্টের জন্য কমপক্ষে ৩ ডলার থেকে সর্বোচ্চ ৪৮০ ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন। পেমেন্ট পাবেন পেপালের মাধ্যমে কিংবা আপ ওয়ার্ক কন্ট্রাক্টের মাধ্যমে।

রেজিস্ট্রেশন লিংকঃ টেস্টার ওয়ার্ক রেজিস্ট্রেশন লিংক

আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। কারো কোনো প্রশ্ন থাকলে নিচের কমেন্ট বক্সে তা করতে পারেন।ভালো থাকবেন, ভালো রাখবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

টেলোফোবিয়াঃ সাইকোলজিক্যাল ফোবিয়া

সাইকোথেরাপিঃ কগনিটিভ বিহেভিয়েরাল থেরাপি বা সিবিটি