Source: https://www.itv.com
in , , ,

পেইড টু পে মার্কেটপ্লেসঃ কী ও কীভাবে?

আমি কিন্তু পেইড টু পে, মার্কেটিং মেথডের কথা বলার জন্য এই পোস্ট লিখছি না। পেইড টু পে বা Paid To Pay একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেস, যেখানে অনলাইন সেক্টরের বিভিন্ন কাজ পাওয়া যায় এবং সেই কাজ এমপ্লয়িরা কমপ্লিট করে ইনকাম করতে পারেন। এরূপ আরো কিছু মার্কেটপ্লেস হচ্ছে, Freelancer.com, Upwork, Fiverr, Seoclerks ইত্যাদি।

পেইড টু পে মার্কেটপ্লেসের সিস্টেমটাও কিছুটা এগুলোর মতোই। পার্থক্য হচ্ছে শুধু অন্য মার্কেটপ্লেসে বিড করে কাজ পেতে হয় আর পেইড টু পেতে কোন বিড করতে হয়না।

কী ধরণের কাজ পাওয়া যায়?

এখানে প্রায় সব ধরণের কাজই পাওয়া যায়। যেমন – ডাটা এন্ট্রি, গ্রাফিক ডিজাইন, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ডিজিটাল মার্কেটিং, ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট, এসইও ইত্যাদি।

কেমন ইনকাম করা সম্ভব হবে?

এখানে ইনকাম নির্ভর করে মেম্বারশিপ প্ল্যানের উপরে। মেম্বারশিপ প্ল্যান হিসাবে প্রতিদিন ফিক্সড কাজ পাওয়া যায় এবং ফিক্সড ইনকাম হয়।

মেম্বারশিপ প্ল্যান সিস্টেমটা আবার কী?

এটা হলো আপনাকে পেইড টু পেতে কাজ করতে হলে আগে যেকোনো একটা মেম্বারশিপ প্ল্যানের আওতায় মেম্বার হতে হবে, তারপর তারা আপনাকে প্রতিদিন কাজ দেবে।

কিভাবে মেম্বারশিপ নিতে পারবো?

মেম্বারশিপ নেয়ার জন্য মিনিমাম ১২০$ থেকে ১২০০$ পর্যন্ত প্ল্যান অনুযায়ী ডিপোজিট করতে হয়। তারপর আপনি আপগ্রেড মেম্বার হবেন এবং কাজ পাবেন প্রতিদিন।

যেমন: ধরেন আপনি $৩০০ ডিপোজিট করলেন তাহলে প্রতি মাসে $৫০ করে আপনাকে কাজ দিবে, যেখানে আপনাকে প্রতিদিন ১৫ মিনিটের কাজ করতে হবে।৬ মাসের মাঝেই ($৫০*৬=$৩০০) আপনি পেয়ে যাচ্ছেন। এরপর যা ইনকাম হবে সবই আপনার প্রফিট।

ইনকাম কী প্ল্যানের পর বৃদ্ধি করা সম্ভব?

আজ্ঞে হ্যা! আপনার মেম্বারশীপ প্ল্যানের পর থেকে অটোমেটিক আপনার ইনকাম ডাবল হবে। যেমন: $৩০০ এর ৬ মাস পর আপনাকে প্রতি মাসে $১০০ এর কাজ দেওয়া হবে। এর জন্য আপনাকে পুনরায় আর ডিপোজিট করতে হবে না।

কাজ না করলে কী প্রতিদিন টাকা যুক্ত হবে?

আজ্ঞে না! আপনি যেদিন কাজ করবেন না সেদিন আপনার একাউন্টে ডলার যোগ হবে না। এটা কোনো সুদের প্রোগ্রাম না, যে কাজ না করলেও টাকা যোগ হবে।

ডিপোজিট করা টাকা কী ফেরতযোগ্য?

আজ্ঞে হ্যাঁ! ডিপোজিট করা টাকা ফেরত পাবেন। মেম্বারশিপ প্ল্যান অনুযায়ী যে টাইম ডিউরেশন আছে, সে সময়ের মধ্যে ফেরত পাবেন। আপনার ডিপোজিট করা টাকা বাদেই আপনি এক্সট্রা কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন।

পেমেন্ট সিস্টেম কী?

পেমেন্ট সিস্টেম হলো – পেপাল, বিটকয়েন, নেটেলার, পারফেক্ট মানি ইত্যাদি। এসব মেথডে আপনি ডলার ডিপোজিট করতে পারবেন এবং পেমেন্ট উইথড্রও করতে পারবেন। ৪ জুলাই ২০১৯য়ের পর ব্যাংক সিস্টেম চালু করা হবে।

উইথড্র সিস্টেম কেমন ?

মিনিমাম উইথড্র ৫$ এবং যেকোনো সময়ে উইথড্র দিতে পারবেন। ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে উইথড্র কমপ্লিট হয়।

এক্সট্রা আর্নিং সিস্টেম আছে কি ?

আজ্ঞে হ্যা! ফিক্সড কাজ বাদেও এক্সট্রা ইনকাম করা যাবে রেফারাল সিস্টেমের মাধ্যমে। কেউ যদি আপনার রেফারেলে ডিপোজিট করে তাহলে আপনি ৫$ কমিশন পাবেন।

ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর কী ? কিভাবে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হতে পারবো?

যদি আপনার রেফারেলে ৩০০ জন ডিপোজিট করে তাহলে আপনি কোম্পানি থেকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসাবে নিয়োগ পাবেন এবং প্রতি মাসে মিনিমাম ১০০০$ বেতন পাবেন সাথে ৫০০$+ এর কাজ পাবেন প্রতি মাসে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট শিখে কেমন আয় করা যায়?

ডেমন ও ডেমনোলজি